বইপ্রেমীদের জন্য

1
17

দুনিয়াজুড়ে বইপ্রেমীরা নতুন বছরের শুরুতেই খোঁজ করতে থাকেন নতুন বই। বিশেষত ইউরোপীয় পাঠকদের এ ঝোঁক বোধ করি খানিকটা বেশি। মূলত ডিসেম্বরের শেষ পর্যায়ে ক্রিসমাস থেকেই নতুন বইয়ের জন্য স্টলে স্টলে ভিড় করতে থাকেন পাঠকেরা। বই কেনার হিড়িক চলে মোটামুটি মার্চ-এপ্রিল নাগাদ। পাঠকদের এই চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রায় প্রতিবছরের শুরুতেই বিশ্বের খ্যাতনামা পত্রিকাগুলো নতুন বছরে প্রকাশিত হয়েছে কিংবা বছরের প্রথম দিকে প্রকাশিত হবে—এমন সব গুরুত্বপূর্ণ ও আলোচিত বইয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচিতিমূলক লেখা ছেপে থাকে। ২০১৭ সালেও এ রেওয়াজের ব্যতিক্রম হয়নি। দ্য গার্ডিয়ান, টাইম ম্যাগাজিন ও দ্য নিউইয়র্ক টাইমস-এর মতো বনেদি কাগজগুলো এর মধ্যেই প্রকাশ করেছে নতুন বছরের নতুন বই ও বইয়ের খবর নিয়ে রকমারি লেখা। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশের পাঠকদের মধ্যেও বিদেশি এসব বইপত্রের ব্যাপারে দেখা গেছে বেশ ঔৎসুক্য। সেই আলোকে ২০১৭ সালের কোন বইগুলো সারা বছর পাঠকদের মনের খোরাক জোগাবে, তার একটি নাতিদীর্ঘ আলোচনাই এ লেখার উদ্দেশ্য। এ ক্ষেত্রে আমাদের অবলম্বন গার্ডিয়ান, টাইম ম্যাগাজিন ও নিউইয়র্ক টাইমস। এখানে যেসব বইয়ের কথা আলোচনা করা হয়েছে, সেগুলোর ভিত্তিতেই তৈরি হয়েছে এ লেখা।

জনপ্রিয়তা, বিষয়বস্তু, লেখক বিচারসহ নানা মানদণ্ডে পত্রিকাগুলো বিভিন্ন বইকে রেখেছে তাদের তালিকায়। নানা শ্রেণির বইয়ের ভিড়ে এতে উপন্যাসেরই জয়জয়কার বেশি।
গার্ডিয়ান যে উপন্যাসকে চলতি বছরের সেরা কাটতি তালিকার শীর্ষে স্থান দিয়েছে, সেটি পল অস্টারের লেখা ফোর থ্রি টু ওয়ান। বইটি ইতিমধেই বাজারে এসেছে। এতে দেখা যায়, বিশ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে এক ব্যক্তি রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত নানা সমস্যায় নিমজ্জিত হয়ে দিগ্ভ্রান্ত অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে। তো, ব্যক্তির চারটি ভিন্ন ভিন্ন গল্প নিয়ে এগিয়েছে ফোর থ্রি টু ওয়ান। অস্টারের লেখা এ বই তাঁর আগের উপন্যাসগুলোর চেয়ে বেশি পাঠকপ্রিয়তা পাবে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকেরা।

খানিকটা উত্তরাধুনিক ঢঙে লেখা উপন্যাস কেইট এটকিনসনের লাইফ আফটার লাইফ। এর গড়নটি এমন: এক অনিশ্চয়তার ভেতর দিয়ে সব সময় জীবন কাটায় মানুষ। একজীবনে একজন মানুষ একই ঘটনার মুখোমুখি হয় বহুবার, তবে প্রতিবারই ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে সে ঘটনাটি মোকাবিলা করে। এই উপন্যাসের একটি মূল থিম হলো, সুখ-অসুখের মাঝামাঝি কোনো পথ নেই; মানুষকে হয় সুখ অথবা অসুখ—দুটির মধ্য থেকে একটিকে বেছে নিতেই হয়। বোদ্ধাদের কেউ কেউ বলেছেন, এ ধরনের ফিকশন আগেও লেখা হয়েছে, তবে এটকিনসনের উপন্যাসে এমন কিছু নতুন উপাদান আছে, যা ভাবাবে পাঠকদের।
অন্য দিকে আমেরিকান ঔপন্যাসিক নাথান হিলের দ্য নিক্স উপন্যাস নিয়ে আগ্রহ দেখা গেছে তরুণ পাঠকদের মধ্যে। উপন্যাসটির অন্যতম প্রধান চরিত্র পেকার খিটখিটে মেজাজের এক মানুষ। রাজনীতিতে যুক্ত। রাজনীতির ভেলকি খুব ভালোভাবেই রপ্ত করেছেন। হরহামেশাই পত্রিকার প্রথম পাতার শিরোনাম হয়ে থাকেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছায়া এই চরিত্রের মধ্যে পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন অনেকেই। আলোচ্য উপন্যাসে রয়েছে সমকালের নানা প্রসঙ্গ, তাই এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠবে—এ মত বিশ্লেষকদের।

Content Protection by DMCA.com

1 COMMENT

Comments are closed.