মাশরাফির অবসর!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

0
3
অবসর নিলেন মাশরাফি! বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয় জনপ্রিয় নাম মাশরাফি আজ টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিলেন।বিদায় ঘোষণায় ফেসবুকে এই ছবিটাও দিয়েছেন মাশরাফিটি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।  মাশরাফি অবসরের কথা বলেছেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জেতার পরও। তবে এই সিরিজটি খেলবেন তিনি । ফেসবুকে লেখা বাংলা ও ইংরেজীতে তার বিদায়ী ভাষণ, ‘টি-টোয়েন্টি ইন্টারন্যাশনালে বাংলাদেশ টিমকে ১০ বছরের বেশি সময় ধরে প্রতিনিধিত্ব করা আমার জন্য অনেক গর্বের। আমি বিশ্বাস করি, বর্তমান দলটি একটি ভালো দল এবং দলে কিছু উদীয়মান খেলোয়াড় আছে। আমার ওপর আস্থা রাখার জন্য এবং আমাকে এত চমৎকার দলের নেতৃত্ব প্রদানের সুযোগ দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড এবং উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের প্রতি আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।’
তিনি বিদায় বেলায় তার ভক্ত, পরিবার ও বন্ধুদেরকে স্মরণ করতে ভুল করেননি। তিনি বলেন, ‘আমি আমার সকল ভক্ত, পরিবার এবং বন্ধুদের প্রতি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ আমাকে সব সময় সমর্থন করার জন্য। এই সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে উত্থান এবং পতন ছিল। আমি সব সময় চেষ্টা করেছি আমার ভক্তদের খুশি করার। আমি আমার প্রত্যেক ভক্তের কাছে প্রতি ম্যাচে খুশি করতে না পারার জন্য ক্ষমা চাইছি। এই মুহূর্তে দল হিসেবে আমরা ভালো খেলছি। আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশ সামনের দিনগুলোতেও ভালো ক্রিকেট খেলবে।’
অবসরের কারণ হিসাবে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট থেকে অবসর নেওয়ার জন্য এটাই আমার উপযুক্ত সময়, যাতে অনেক তরুণ উদীয়মান ক্রিকেটার তাদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারে এবং বিসিবি তাদেরকে সঠিক দিকনির্দেশনা দিতে পারে। আমি বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলের নতুন অধিনায়ককে আগাম অভিনন্দন জানাই এবং আমি নিশ্চিত বাংলাদেশ ক্রিকেটের সেরা সময় সামনে আসবে।’
মাশরাফি সেই সময়কার ক্রিকেটার যে সময় বাংলাদেশ বছরে দুটি করে সিরিজ খেলার সুযোগ পেত। একবারের কথা মনে পড়ে। টেষ্টের চতুর্থ ইনিংসে জিম্বাবুয়ের দরকার মাত্র 12 রান। মাশরাফির তখন একেবারেই প্রথম দিক। অথচ সেই 12 রানের মধ্যেই মাশরাফি দুটি উইকেট তুলে নিয়েছেন। তার প্রথম দিকে আরও দেখেছি প্রতিপক্ষের ব্যাটিং বিপর্যয়। একেবারে শুরুর দিকেই হয়ত 3 বা 4 টি উইকেট পড়ে গেছে যার সবকটি নিয়েছেন মাশরাফি। কিংবা ব্যাটিংএ গোটা দল যেখানে এটি বলও জোরে মারার সাহস পায়নি, অথচ তিনি শেষের দিকে ব্যাটে এসেই পরপর দুটি ছক্কা উপহার দিলেন। স্মৃতিগুলি ভূলে যাওয়া সম্ভব নয়। কোনটি ভুলে যাব বলুন, 5-5 বার পায়ে অপারেশন করার পরও দৌড়ে গিয়ে বল ছুড়ে দেয়া কিংবা দুর্দান্ত ড্রাইভ দিয়ে চার রান বাচানো। কিংবা তার সতীর্থদের প্রতি তার পরম ভালোবাসার কথা। …………………
Content Protection by DMCA.com